গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির বৈঠক

10

যুগবার্তা ডেস্কঃ একাদশ জাতীয় সংসদের প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির তৃতীয় বৈঠক কমিটির সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান-এর সভাপতিত্বে আজ জাতীয় সংসদ ভবনস্থ কেবিনেট কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় অংশ নেন কমিটির সদস্য মোঃ জাকির হোসেন, ইসমাত আরা সাদেক, আলী আজম, মোঃ নজরুল ইসলাম বাবু, শিরীন আখতার ও ফেরদৌসী ইসলাম ।

উপজেলা পর্যায়ে বিদ্যালয়সমূহ পরিদর্শনের বিষয়ে বৈঠকে আলোচনা হয়। সারাদেশে যথাযথ কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সশরীরে বিদ্যালয় পরিদর্শন ও রিপোর্ট জমাদানের পাশাপাশি অনলাইনভিত্তিক ‘ই-মনিটরিং’ এর আওতায় প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন নিশ্চিত করা হয়েছে মর্মে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ হতে জানানো হয়।

বৈঠকে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন উন্নয়ন প্রকল্পসমূহ বাস্তবায়ন, গুণগতমান ও অগ্রগতি সম্পর্কে আলোচনা হয়। ‘বান্দরবান জেলার লামা, আলীকদম ও থানচি উপজেলার অফ গ্রিড স্কুলসমূহে সোলার সিস্টেম স্থাপন ও নিরাপদ পানি সরবরাহের সম্ভাব্যতা/সমীক্ষা প্রকল্প’-এর আওতায় ১০ জুন ২০১৯ হতে লামা উপজেলায় ডিপ-টিউবওয়েল স্থাপনের কাজ শুরু হয়েছে এবং ইতোমধ্যে লামা উপজেলার ১১টি বিদ্যালয়ে সোলার পাম্প স্থাপনের নিমিত্ত ডিপ-টিউবওয়েলের বোরিং এর কাজ সম্পন্ন হয়েছে ও অন্যান্য বিদ্যালয়সমূহে বোরিং এর কাজ চলমান রয়েছে, ‘ডিজিটাল প্রাথমিক শিক্ষা প্রকল্প’-এর আওতায় নির্বাচিত ৫০৯টি প্রাথমিক বিদ্যালয়সমূহের মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুমগুলো কেন্দ্রীয় পর্যায়ে মনিটরিং করার জন্য বায়োমেট্রিক উপস্থিতি ডিভাইস, ওয়াই-ফাই ক্লাউড ক্যামেরা ও ওয়াই-ফাই রাউটার যন্ত্রাংশ/মালামাল/সেবা ই-জিপি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ক্রয়ের জন্য ৫টি লটে দরপত্র আহ্বান করা হয়েছে, ‘নগরবস্তি আনন্দস্কুল কার্যক্রম’-এর আওতায় ১০টি সিটি কর্পোরেশনে আরবান স্লাম আনন্দ স্কুল কার্যক্রম চলছে যাতে ৪০,১০০ জন শিক্ষার্থী অধ্যয়ন করছে, ‘প্রি-ভোকেশনাল স্কিলস প্রশিক্ষণ কর্মসূচি’-এর আওতায় বিভিন্ন ট্রেডে ১৬,৫০০ জন শিক্ষার্থী প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেছে যার মধ্যে ৮,১২৫ জন প্রশিক্ষণার্থীর কর্মসংস্থান হয়েছে, ২০১৯-২০ সালে কক্সবাজার জেলার ৮টি উপজেলা ও বান্দরবান জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় ৮৫০০ জনকে প্রি-ভোকেশনাল প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে, ‘দারিদ্য পীড়িত এলাকায় স্কুল ফিডিং কর্মসূচি (তৃতীয় সংশোধিত)’-এর আওতায় বর্তমানে দেশের দারিদ্র্যপ্রবণ ১০৪টি উপজেলায় স্কুল ফিডিং কার্যক্রম চলমান রয়েছে মর্মে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ হতে জানানো হয়।

বৈঠকে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব, মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ এবং জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।