ক্ষতিগ্রস্থদের সরকার সহায়তা দেবে–উপমন্ত্রী নাহার

1

মোঃ নূর আলমঃ ঘুর্ণিঝড় ”বুলবুল”এর তান্ডবতার ক্ষয়ক্ষতি নিরƒপন হচ্ছে। ক্ষতিগ্রস্থদের সরকারের পক্ষ থেকে উপযুক্ত সহায়তা দেবে। জনপ্রতিনিধি এবং বিত্তবানদের ক্ষতিগ্রস্থ পারিবারের পাশে দাড়াতে হবে। রবিবার ঘূর্ণিঝড় বুলবুল’র তান্ডবতা পরবর্তী মোংলা উপজেলার ৬টি ইউনিয়নে দিনব্যাপী ক্ষয়ক্ষতি পরিদর্শনকালে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার এমপি একথা বলেন। এসময় তার সাথে ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার, সহকারি কমিশনার ( ভূমি ) নয়ন কুমার রাজবংশী, থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইকবাল বাহার চৌধুরী, সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান প্রমূখ।
উপজেলা নির্বাহি অফিসারের কার্য্যালয় থেকে জানা যায় মোংলায় ঘূর্ণিঝড় বুলবুল’র আঘাতে ১ হাজার ৩শ ৭০টি বাড়ী ঘরের ক্ষতি সাধন হয়েছে। ঝড়ের নতুন প্রান সাইক্লোন শেল্টারে জন্ম নেয়া বুলবুলি’র পরিবারকে বাগেরহাট জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে ২০ হাজার টাকা অনুদান প্রদান করা হয়। মোংলা উপজেলা নির্বাহি অফিসার মোঃ রাহাত মান্নান জানান ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের আক্রমনে মোংলায় ১ হাজার ৩শ ৭০টি বাড়ী ঘরের ক্ষতিসাধন হয়েছে। এর মধ্যে ১৯৮টি বাড়ী-ঘন সম্পূর্ণ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে এবং ১১শ ৭২টি বাড়ী-ঘর আংশিক ক্ষতি হয়েছে। এছাড়া ১৬শ ৮০টি চিংড়িঘের ভেসে গেছে, প্রচুর গাছ উপড়ে পড়েছে এবং রাস্তা-ঘাট চলাচলের অনুপযোগী হয়েছে। অন্যদিকে ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের সময়ে ১০ নভেম্বর মধ্য রাতে মোংলার মিঠাখালী এটিসি সাইক্লোন শেল্টারে জন্ম নেয়া নতুন প্রান বুলবুলির পরিবারকে বাগেরহাট জেলা প্রশাসক মোঃ মামুনুর রশিদের পক্ষ থেকে ২০ হাজার টাকার অনুদান প্রদান করা হয়েছে। ডিসি’র পক্ষে অনুদানের টাকা প্রদান করেন বাগেরহাটের নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট মিজানুর রহমান,এসময় উপস্থিত ছিলেন সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সাংবাদিক মোঃ নূর আলম শেখ ও উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা তৌহিদুজ্জামান। সুন্দরবনের করমজল বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আজাদ কবির বলেন বুক উজাড় করে দিয়ে সুন্দরবন উপকূলবাসীকে রক্ষা করেছে। ভাটার সময় আঘাত করায় বন্যপ্রাণীর কোন ক্ষতি হয়নি। তবে গাছ-পালার বেশ ক্ষতি হয়েছে।