ক্যান্সারের ৭ টি উপসর্গ

যুগবার্তা ডেস্কঃ শরীর আছেতো রোগ আছে। রোগের কোন শেষ নেই। সমাধানেরও অনেক উপায়ও রয়েছে।তবে সঠিক সময় সমাধানের উদ্দ্যোগ না নিলে জীবনের ঝুকিতে পরতে হয়। তবে সচেতন হলে এসব ঝুকি এড়ানো সম্বব। রোগ প্রকট হওয়ার আগে বেশ কিছু লক্ষণ থাকে। লক্ষণ থেকে চেনা যায় রোগের নাম। তেমনি বর্তমানে যেসব রোগ মৃত্যুর ঝুকি বেশী তারমধ্যে প্রধানতম নাম ক্যান্সার। ক্যান্সারের কয়েক লক্ষণ রয়েছে। আসুন জেনে নেই ক্যান্সারের এমন সাতটি উপসর্গ সম্পর্কে।
১. ত্বকের কোষের অস্বাভাবিক বৃদ্ধি। এটা ত্বকের বা স্তন ক্যান্সারের অন্যতম লক্ষণ। এর অন্যান্য লক্ষণগুলো-
ক্স স্তন বা বগলে জায়গায় জায়গায় শক্ত হয়ে যায়।
ক্স শরীরের বিভিন্ন স্থানে র‍্যাশে ওঠা। যার জন্য খাবার বা প্রসাধনী সামগ্রী সংশ্লিষ্ট নয়।
ক্স বেড়ে যাওয়া কোষের মধ্যে ভেজা বা পূজ বের হওয়া।
ক্স শরীরে সাদা সাদা ছোপ পড়া।
২. দীর্ঘ সময় ধরে কাশি থাকা থাকা। এর থেকে যা হতে পারে
ক্স ক্ষুধা মন্দা হওয়া।
ক্স শরীরের ওজন কমে যাওয়া।
ক্স শ্বাসকষ্ট হওয়া এবং কফের সঙ্গে রক্ত পড়া।
৩. শরীর র‍্যাশ উঠতে পারে এবং চুলকায়। তবে এটার সঙ্গে টিউমার হওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই।অন্যান্য উপসর্গগুলো হচ্ছে-
ক্স কোনো কারণ ছাড়াই জরায়ুতে চুলকানি হওয়া।
ক্স নাকে র‍্যাশ থেকে হওয়া চুলকানি মস্তিষ্কে ক্যান্সারের শঙ্কা বাড়িয়ে দেয়।
৪. পেটের পীড়াও অনেক সময় ক্যান্সারের নানা উপসর্গের বলে দেয়।
মলের সঙ্গে রক্ত পড়া।
মুখের মধ্যে ঘা হওয়া বা পুজ বের হওয়া
৫. প্রস্রাবে জ্বালাপোড়া করা। এটা সম্ভবত কিডনিতে ক্যান্সোরের লক্ষণ। এর অন্যান্য উপসর্গগুলো হলো-
প্রস্রাবের সঙ্গে রক্ত পড়া।
হাইপারটেনশর বা উচ্চ রক্তচাপ
কিডনিতে ব্যথা করা।
বিনা কারণে দুর্বল লাগা।
৬. পাকস্থলীর ক্যান্সারে আক্রান্ত হলে ক্রমাগতভাবে ওজন কমতে থাকে। অন্যান্য উপসর্গগুলো হলো-
খাবারে অনীহা।
অল্প খাবার খেয়ে মনে হবে অনকে বেশি খাওয়া হয়েছে।
রক্ত শূন্যতা।
পেটের হজম প্রক্রিয়ায় সমস্যা হওয়া।
৭. দীর্ঘদিন ধরে কণ্ঠনালীতে সমস্যা থাকা। এটা ল্যারিজেনাল ক্যান্সারে উপসর্গ। এছাড়া অন্যান্য লক্ষণগুলো হলো-
ক্স শ্বাস-প্রশ্বাসে কষ্ট হওয়া।
ক্স মনে হবে কণ্ঠনালীর মধ্যে কিছূ একটা আটকে আছে। অর্থাৎ কোষের বৃদ্ধি।
ক্স গলার স্বর ফ্যাঁসফ্যাঁসে হয়ে যাবে।
ক্স কফ বা কাশির সঙ্গে রক্ত পড়বে।