কৃষিজমিতে শিল্পকারখানা নয়: প্রধানমন্ত্রী

যুগবার্তা ডেস্ক:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাংলাদেশে জমির পরিমাণ সীমিত। তাই উর্বর কৃষিজমির যেখানে-সেখানে শিল্পকারখানা স্থাপন করা যাবে না।

বুধবার সকালে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বাংলাদেশ রফতানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকা কর্তৃপক্ষ (বেপজা) সামিটের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকারের বিনিয়োগবান্ধব নীতি এবং সময়োপযোগী বিভিন্ন পদক্ষেপের কারণে ইপিজেডগুলো দেশের মোট জাতীয় রফতানি ও বৈদেশিক বিনিয়োগে প্রায় ২০ শতাংশ অবদান রাখছে।

বিনিয়োগবান্ধব নীতির ফলেই চীন, জাপান, যুক্তরাষ্ট্রসহ ৩৮ দেশের বিনিয়োগকারীরা ইপিজেড কারখানায় বিশ্বখ্যাত ব্র্যান্ড উৎপাদন করছে বলে জানান শেখ হাসিনা।

তিনি আরও বলেন, বিনিয়োগের অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টির লক্ষ্যে পদ্মা সেতু, মেট্রোরেলের মতো মেগা প্রজেক্ট বাস্তবায়ন করা হচ্ছে, যা আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে বৈপ্লবিক পরিবর্তন আনবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা দেশে যেসব বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তুলছি, সেখানে বিনিয়োগ করলে বিনিয়োগকারীদের সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা দেয়া হবে। ফলে আমাদের দেশেও কর্মসংস্থান বৃদ্ধি পাবে।

এ সময় তিনি আওয়ামী লীগ সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের চিত্র তুলে ধরেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, একসময় দেশে বিদ্যুতের জন্য হাহাকার ছিল। ইতিমধ্যে আমরা ১৬ হাজার ৪৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের সক্ষমতা অর্জন করেছি। দেশে ৪৫ লাখ সোলার প্যানেল উৎপাদন হচ্ছে। এ ছাড়া ভারত থেকে ৬০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানি করেছি। আর ভারত ও নেপাল থেকে আরও দুই হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানির প্রক্রিয়া শুরু করেছি।

তিনি আরও বলেন, নেপাল-ভারত-ভুটান-বাংলাদেশের মধ্যে রফতানি ও আমদানি বাড়াতে চুক্তি করেছি। এসব দেশকে আমাদের চট্টগ্রাম বন্দর ব্যবহরের অনুমোদন দিয়েছি। তা ছাড়া চার দেশ মিলেও বিশেষ অর্থনৈতিক সড়ক করছি। ফলে পণ্য আমদানি-রফতানিতে সব দেশই সুবিধা পাবে। এ ছাড়া বাংলাদেশ এশিয়ার রেলওয়েতে যুক্ত হচ্ছে। ফলে সব মিলিয়ে বাংলাদেশ বিনিয়োগের উপযুক্ত স্থানে পরিণত হচ্ছে।