এক্সিট পুলঃনিদ্রাহীন রাত্রী ও সময়ের কথা

হিমাংশু মিত্রঃ ভারতের নির্বাচন ঘোষণার পর থেকে প্রায় তিন মাস ওখানে ছিলাম, অসুস্থতা আমার থাকার কারন হলেও যেহেতু আমার ডাক্তার একজন এম,পি প্রার্থী (ডাঃ ফুয়াদ হালিম) এবং আমার শিক্ষা জীবনটা ভারতে ,তাই বোঝার চেস্টা করছিলাম আসলে কি হতে চলেছে?

যেহেতু দেশটা আমার না -তাই আমি এ বিষয় কিছু বলা বা লেখা থেকে বিরত ছিলাম, কিন্তু এই এক্সিট পুলের নাচা-নাচি আজ লিখতে বাধ্য হলাম ।
ভোটের কয়টা আসন কে পাবে জানিনা, তবে আমি নিশ্চিত বাম -ফ্রন্টের ভোট বাড়বে পশ্চিম বঙ্গে রাজ্য সরকারের ক্ষমতাসীনদের ভোট কমবে , এবং সাময়িকভাবে বিজেপির ভোট (রাজনৈতিক ) না বাড়লেও আসন হয়তো সরকার গঠনে সহায়ক থাকবে।

বিজেপির আসন বৃদ্ধি নিয়ে যাদের সাথে কথা বলেছি , তাদের মতে কেন্দ্রে সেভাবে বিরোধীদের জোট না হওয়ায় -কেন্দ্রে আবার বিজেপি ক্ষমতায় আসার সম্ভাবনা বেশী। আর যদি তাই হয় তাহলে পশ্চিমবঙ্গে বর্তমান সরকারের বিরোধিতা একমাত্র বিজেপির দ্বারা সম্ভব।(চিন্তাটা ভারতীয়দের তাই তারাই বুঝবেন) তবে সাধারন মানুষ মনে করে সংসদে কথা বলার জন্য বামপন্থী দের দরকার।

বেগুসরাই গেছি, শুনেছি কানাইয়ার বিকল্প নাই। কিন্তু ওতো ভোটে জিতবে না। কি আশ্চর্য সমিকরন ।
উড়িষ্যা গেছি, বামপন্থী সংগঠন কি আছে জানিনা। কিন্তু মেহনতি মানুষ মনে করে বামপন্থীরা তাদের সাথী (পুরীর ফনির আঘাতের পর সেটা প্রমানিত )। হ্যাঁ, তারপরও আজ বলছি। দেশের নির্বাচনের ফল যাই হোক, ওখানে মানুষের মন জয় করেছে কানাইয়া। বিকাশদার মত নেতারা যারা আগামী দিনে দেশের দিশা দেখাবে আর এক্সিটপুল (?) আমার ছোট মনের ধারনা যদি ভুল না হয় তাহলে ২৩ তারিখের পর মূখে চুন কালি মেখে ঘুমাবে।-লেখক: একজন সমাজকর্মী ।