যুগবার্তা ডেস্কঃ ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র পদে উপনির্বাচন ছয় মাসের জন্য স্থগিত করা হয়েছে। পৃথক দুটি রিট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে হাইকোর্ট নির্বাচনের উপর এ স্থগিতাদেশ দেন। এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ গতকাল মঙ্গলবার ইত্তেফাককে বলেন, ঢাকা উত্তর সিটির উপনির্বাচন ছয় মাস এবং দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর পদের নির্বাচনের উপর চার মাসের জন্য স্থগিতাদেশ দিয়েছেন আদালত।

তিনি বলেন, ঢাকা উত্তর সিটির রায়ের পর বাদি পক্ষের আইনজীবীর সার্টিফিকেট কপি পেয়েছিলাম। সেখানে কতদিনের জন্য স্থগিতাদেশ দেওয়া হয়েছে তা উল্লেখ ছিল না। এখন আদেশের ফটোকপি পেয়েছি। সেখানে ছয় মাসের স্থগিতাদেশের বিষয়টি জানলাম। সচিব বলেন, আমরা আদেশের সত্যায়িত অনুলিপি পাওয়ার অপেক্ষায় রয়েছি।

গত ৩০ নভেম্বর মেয়র আনিসুল হকের মৃত্যুর পর ডিএনসিসির মেয়র পদে উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। তফসিল অনুযায়ী, আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি ডিএনসিসির মেয়র পদসহ ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনে নতুন যুক্ত হওয়া ১৮টি করে ৩৬টি সাধারণ ওয়ার্ড এবং ৬টি করে ১২টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডের ভোট হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু নির্বাচনী তফসিলের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে দুটি রিট করা হয়। ওই দুটি রিটের প্রেক্ষিতে গত ১৭ জানুয়ারি বিচারপতি নাঈমা হায়দার ও বিচারপতি জাফর আহমদের ডিভিশন বেঞ্চ উত্তর সিটি করপোরেশনের নির্বাচনের উপর স্থগিতাদেশ দেন।

একইসঙ্গে তফসিল কেন আইনগত কর্তৃত্ববহির্ভূত ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করা হয়। হাইকোর্টের আদেশের পর রিটকারী পক্ষের অন্যতম আইনজীবী অ্যাডভোকেট আহসান হাবিব ভূইয়া সাংবাদিকদের বলেছিলেন, হাইকোর্ট নির্বাচনী তফসিল তিন মাসের জন্য স্থগিত করেছে।

এদিকে আজ আদেশের সার্টিফায়েড কপি পাওয়ার আশা করছে নির্বাচন কমিশন। আদেশের সার্টিফায়েড কপি পেলেই কমিশন তা পর্যালোচনা করে আপিলের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে বলে জানা গেছে।-ইত্তেফাক