উজিরপুরে শত বছরের ভোগদখলীয় জমি দখলের পায়তারা

উজিরপুর প্রতিনিধিঃ বরিশালের উজিরপুরে কয়েকটি পরিবারের শত বছরের ভোগদখলীয় জমি জল্লা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্তৃপক্ষ জোড় পূর্বক দখলের পায়তারা চালাচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে, যে কোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা করছে এলাকাবাসী।

ভুক্তভোগী সূত্রে জানা যায় উপজেলার জল্লা মৌজায় এস,এ ৭৭২/৭৫৫ নং দাগ, যাহার বি,এস ১৯৭৯,১৯৭৮ নং দাগ, মোট জমির পরিমান ৫০ শতাংশ এর মধ্যে ৬ শতাংশ জমির উপর হাসপাতাল স্থাপিত রয়েছে। বাকী ৪৪ শতাংশ জমি জল্লা গ্রামের ক্ষিতিশ বিশ্বাস, নিমাই বিশ্বাস, কৃষ্ণ বিশ্বাস, সুশিল বিশ্বাস, রবীন্দ্র নাথ বিশ্বাস, নরত্তম বিশ্বাস, রমেশ বিশ্বাস , সুবোধ বিশ্বাস, রিমনি রায়, পরিতোষ রায়, গেদু রায়, দেবদাস রায় গংদের ˆপত্রিক ও ওয়ারিশ মূলে শত বছর ধরে ভোগদখল করে আসছে। ওই ভোগদখলীয় জমিতে অসৎ উদ্দেশ্য নিয়ে উপজেলা পঃ পঃ কর্মকর্তা লায়লা পারভীন, ইউনিয়ন সাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনার দায়ীত্ব প্রাপ্ত ডাঃ সামীম হোসেন মিলে ঠিকাদার কবির হোসেন সহ একদল ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী নিয়ে জোড় পূর্বক ৬ এপ্রিল সকাল ১০ টায় পুরো ৫০ শতাংশ জমির চারিপাশে পাঁকা দেয়াল করে জমি দখলের পায়তারা চালায়। বিষয়টি টের পেয়ে প্রকৃত জমির মালিকরা বাঁধা দিলে প্রভাবশালীরা পাঁকা দেয়াল নির্মান বন্ধ করে দেয়। ভুক্তভোগীরা জানান হাসপাতালের নাম করে আমাদের জমি দখল করে নিতে চায় প্রভাবশালীরা এবং আমাদের বিভিন্ন মামলায় জড়িয়ে পুলিশ দিয়ে গ্রেফতার করে জেল হাজতে ঢুকিয়ে দেয়া হবে বলে হুমকী দেয়। উপজেলা পঃপঃ কর্মকর্তা লায়লা পারভীন জানান স্থানীয় লোকজন ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নামে ৪৫ শতাংশ জমি দান করে সেই মোতাবেক ওই স্থানে ভবন হয়েছিল। বর্তমানে সেই মোতাবেক জমির চারিপাশে পাঁকা দেয়াল দেয়ার টেন্ডার হয়েছে। কতিপয় লোক কার্যক্রমে বাঁধা সৃষ্টি করছে। এদিকে অসহায় পরিবাররা তাদের শেষ সম্বল জমি দখল মুক্ত রাখতে ও প্রভাবশালীদের কবল থেকে রক্ষা পেতে সিভিল সার্জন সহ পুলিশ ও প্রশাসনের উর্দ্ধোতন কর্তৃপক্ষের সু-দৃষ্টি কামনা করেন।