উজিরপুরে উপজেলা চেয়ারম্যান পদে তুমুল প্রতিদ্বন্ধিতার মুখে তিন প্রার্থী

উজিরপুর প্রতিনিধিঃ বরিশালের উজিরপুরে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের আর মাত্র দুইদিন বাকি। চেয়ারম্যান পদে শেষ মুহুর্তে তুমুল প্রতিদ্বন্ধিতা নিয়ে তিনপ্রার্থী ব্যাপক গণসংযোগে ব্যস্ত সময় পার করছেন। বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে তিনটায় গুঠিয়া ইউনিয়নের চাঙ্গুরিয়া এলাকায় আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি, বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান ইকবাল কাপ পিরিচ প্রতীক নিয়ে গণসংযোগে ব্যস্ত দেখা গেছে। অপরদিকে বিকাল ৪টায় শোলক ইউনিয়নের ধামুরা স্কুল মাঠে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী আঃ মজিদ সিকদার বাচ্চুর নৌকা প্রতীকের বিশাল উঠান ˆবৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। দিনভর ঐ এলাকার বিভিন্ন স্থানে ব্যাপক গণসংযোগ করেন তিনি। বিকাল সাড়ে ৫টায় শোলক ইউনিয়নের বাবরখানা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে অপর স্বতন্ত্র প্রার্থী জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ আম্বিয়া) এর কেন্দ্রীয় নেতা সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ বাদল আনারস প্রতীক নিয়ে উঠান ˆবঠক করেন।

গণসংযোগকালে আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের মনোনীত প্রার্থী আঃ মজিদ সিকদার বাচ্চু বলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, দক্ষিণ বঙ্গের আওয়ামীলীগের অভিভাবক আবুল হাসানাত আব্দুল্লহ এর প্রতীক হচ্ছে নৌকা। আওয়ামীলীগের কান্ডারী আমাকে নৌকা প্রতীক দিয়ে মনোনয়ন দিয়েছেন। উন্নয়নের ধারাকে অব্যাহত রাখতে উজিরপুরবাসী ২৪ মার্চের নির্বাচনে আমাকে বিপুল ভোটে নির্বাচিত করবেন বলে আমার বিশ্বাস। আমি সুখে দুঃখে সবার পাশে থাকতে চাই।

আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী হাফিজুর রহমান ইকবাল বলেন, আমি উপজেলা চেয়ারম্যান থাকাকালীন এলাকায় ব্যাপক উন্নয়ন করেছি, আমি কর্মীবান্ধব, আমি আওয়ামীলীগকে ভালবাসি। অবাধ শান্তিপূর্ণ নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে ভোটাররা আমাকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করবেন।

স্বতন্ত্র প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ বাদল বলেন, আমি ছাত্র রাজনীতি থেকে শুরু করে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান থাকাকালীন কোথাও কোন দূর্নীতি, অপরাধ বা অন্যায় করিনি। অসহায় দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফুটাতে আমি চেষ্টা করেছি। সকল আন্দোলন সংগ্রামে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছি। তাই অবাধ শান্তিপূর্ণ নির্বাচন হলে বিপুল ভোটে বিজয়ী হওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।