ঈদযাত্রাকে নিরাপদ ও নির্বিঘ্ন করতে ৩২ পদক্ষেপ

যুগবার্তা ডেস্কঃ ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ঘরমুখো মানুষের যাত্রাকে নিরাপদ ও নির্বিঘ্ন করতে ৩২টি পদক্ষেপ নিয়েছে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়। গত ৯ মে মন্ত্রণালয়ের এক সভায় পদক্ষেপগুলো নেওয়া হয়।

কর্তৃপক্ষের দাবি, পদক্ষেপগুলো বাস্তবায়নের মাধ্যমে ঈদযাত্রাকে নিরাপদ ও নির্বিঘ্ন করা যাবে।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, পদক্ষেপগুলোর মধ্যে রয়েছে-মহাসড়ক রক্ষণাবেক্ষণ ও মেরামত, জাতীয় ও আঞ্চলিক মহাসড়কগুলো যানজট মুক্ত রাখা, টার্মিনালগুলোয় শৃঙ্খলা রক্ষায় ভিজিলেন্স টিম গঠন করা, দুর্ঘটনার পর সড়কে যানজট নিয়ন্ত্রণ, সড়কে অস্থায়ী বা ভাসমান বাজার অপসারণ, মহাসড়কের অপব্যবহার বন্ধ করা, বিকল্প সড়ক ব্যবহার, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ,লক্কড়-ঝক্কড় গাড়ি চলাচল নিয়ন্ত্রণ ও মোবাইল কোর্ট পরিচালনা, যত্রতত্র গাড়ি পার্কিং বন্ধ করা, নসিমন-করিমন, ইজিবাইক, থ্রি-হুইলার বন্ধ করা,এক্সেল লোড কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করা, টোল প্লাজার সব বুথ খোলা রাখা, সিএনজি স্টেশন চালু রাখা, ২২টি জাতীয় মহাসড়কে থ্রি-হুইলার বন্ধ রাখা, জরুরি সার্ভিসগুলো প্রস্তুত রাখা, বিআরটিসির স্পেশাল সার্ভিস চালু করা, ফেরির সংখ্যা বৃদ্ধি, বিনা প্রয়োজনে মহাসড়কে গাড়ি না থামানো, নির্দিষ্ট সময়ের জন্য বাস, ট্রাক, লরি ও কাভার্ড ভ্যান বন্ধ রাখা, ঈদ উপলক্ষে বিভিন্ন দিনে গার্মেন্টস ফ্যাক্টরি বন্ধ দেওয়া ও খোলা রাখা, দুর্ঘটনায় কবলিত গাড়ি দ্রুত অপসারণের জন্য রেকার ও ক্রেন প্রস্তুত রাখা, বড় ধরনের দুর্ঘটনা মোকাবিলায় হেলিকপ্টার ব্যবহার করা, অনভিজ্ঞ চালক দিয়ে মহাসড়কে গাড়ি না চালানো, টয়লেটগুলো ব্যবহার উপযোগী রাখা, কেন্দ্রীয় কন্ট্রোল রুম চালু করা, যানজট নিরসনে আব্দুল্লাহপুর-গাজীপুর মহাসড়কের বিভিন্ন স্থানের গ্যাপ যৌক্তিকভাবে কমিয়ে আনা, আব্দুল্লাহপুর-গাজীপুর চৌরাস্তার দুই পাশে যানবাহন চলাচলের জন্য দু’টি লেন করে চার লেন উন্মুক্ত রাখা এবং শিল্প কারখানার পণ্যবাহী ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান মহাসড়কে পার্কিং করে লোড-অনলোড না করা।

এ বিষয়টি নিশ্চিত করে মন্ত্রণালয়ের সহককারী সচিব লিয়াকত আলী গণমাধ্যমকে বলেন, ‘এই ঈদে সাধারণ মানুষের যাত্রা নির্বিঘ্নে করতে প্রায় ৩২টি পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। এগুলো বাস্তবায়ন করতে সংশ্লিষ্ট সবাইকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আমরা আশা করছি এর ফলে সড়কে তেমন ভোগান্তি হবে না।’

এদিকে কর্তৃপক্ষ বলছে, ঈদযাত্রায় ঘরমুখো মানুষের দুর্ভোগের বিষয়টি মাথায় রেখেই ঈদের অন্তত সাত দিন আগেই মহাসড়ক রক্ষণাবেক্ষণ ও মেরামত করতে মন্ত্রণালয়ের সড়ক বিভাগকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এরই মধ্যে ঢাকা-চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন সড়ক মেরামত করা চলছে।-কালেরকন্ঠ