আন্তর্জাতিক নদীকৃত্য দিবস উপলক্ষে জবিতে মানববন্ধন

অন্তু আহমেদ,জবি প্রতিনিধি : নদীকে বাঁচতে দেই, তাকে নিজের মত চলতে দেই। নদীমাতৃক আমাদের দেশে নদীর প্রতি অবহেলার জন্য হারিয়ে গিয়েছে ও যাচ্ছে অনেক নদী।নদীর গুরুত্ব ও অবদানের কথা না জানায় প্রতিনিয়ত নদীদূষণ হচ্ছে। রিভারইন পিপলের সদস্যরা জানান, নদীদূষণ মোটেও ক্ষুদ্র কোন সমস্যা নয়। আমরা মাছে ভাতে বাঙালি,কৃষিই আমাদের প্রধান পেশা। তাই নদী আমাদের কাছে মায়ের মতোই। নদী বাঁচলেই, বাঁচবে দেশ। হবে সোনার বাংলাদেশ। তাই নদীমৃত্যুর দায় আমাদের সবার।নদী দূষণ ও দখল রোধে আমাদের সবাইকে যার যার জায়গা থেকে এগিয়ে আসতে হবে।

আগামী ১৪ মার্চ, আন্তর্জাতিক নদীকৃত্য দিবস উপলক্ষে “নদী দূষণ ও দখল” রোধকল্পে সচেতনতা তৈরী লক্ষ্যে রবিবার দুপুর ১২ টায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ভাস্কর্য চত্বরে রিভারইন পিপল, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার উদ্দ্যোগে এক “মানবন্ধন” কর্মসূচি আয়োজন করা হয়। এতে বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীগণ উপস্থিত ছিলেন।

মানবন্ধনে অংশ নেন রিভারাইন পিপল, জবি শাখার উপদেষ্ঠা ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণীবিদ্যা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক জনাব আব্দুল্লাহ-আল-মাসুদ, রিভারাইন পিপল জবি শাখার সাধারণ সম্পাদক আল-আমিন হুসাইন,সাংগঠনিক সম্পাদক রাশেদুল হাসান রাজ ও অন্যান্য নেতৃবৃন্দ প্রমুখ।

সহযোগী অধ্যাপক জনাব আব্দুল্লাহ-আল-মাসুদ বলেন, “নদী মায়ের মত।আমাদের সুস্থ জীবন ধারণ ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে স্থিতিশীল প্রাকৃতিক পরিবেশ দেবার জন্য নদীদূষণ রোধে এগিয়ে যেতে হবে।পরিবার থেকেই শিক্ষা প্রদান করতে নদীর গুরুত্বের ব্যাপারে।”

মানবন্ধন অংশ নেয়া শিক্ষার্থী নদী দখল ও দূষণ রোধকল্পে সোচ্চার হবার এবং নদী রক্ষার আন্দোলন দেশব্যাপী ছড়িয়ে দেবার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।