আগামী ২৮ ডিসেম্বর দেশের ২৫টি পৌরসভায় ভোট গ্রহণ করা হবে

7

ডেস্ক রিপোর্ট: আগামী ২৮ ডিসেম্বর দেশের ২৫টি পৌরসভায় ভোট গ্রহণ করা হবে। আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে আজ সন্ধ্যায় এ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিবালযের সিনিয়র সচিব মো. আলমগীর।
এসময় তিনি জানান, প্রথম ধাপে এ ২৫টি পৌরসভার মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিন ১ ডিসেম্বর, মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই ৩ ডিসেম্বর, মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষদিন ১০ ডিসেম্বর এবং ভোটগ্রহণ করা হবে ২৮ ডিসেম্বর। প্রথম ধাপের ২৫টি পৌরসভায় সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ভোটগ্রহণ করা হবে।
প্রথম ধাপে যে ২৫ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ সেগুলো হল-পঞ্চগড় জেলার পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ, দিনাজপুরের ফুলবাড়ী, রংপুরের বদরগঞ্জ, কুড়িগ্রামের কুড়িগ্রাম, রাজশাহীর পুঠিয়া ও কাটাখালী, সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর, পাবনার চাটমোহর, কুষ্টিয়ার খোকসা, চুয়াডাঙ্গার চুয়াডাঙ্গা, খুলনার চালনা, বরগুনার বেতাগী, পটুয়াখালীর কুয়াকাটা, বরিশালের উজিরপুর ও বাকেরগঞ্জ, ময়মনসিংহের গফরগাঁও, নেত্রকোনার মদন, মানিকগঞ্জের মানিকগঞ্জ, ঢাকার ধামরাই, গাজীপুরের শ্রীপুর, সুনাগঞ্জের দিরাই, মৌলভীবাজারের বড়লেখা, হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ এবং চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডু।
দেশের পৌরসভা রয়েছে মোট ৩২৯টি। প্রথমধাপের মাধ্যমে পৌরসভা সাধারণ নির্বাচন শুরু হল। ধাপে ধাপে বাকি নির্বাচন হবে। এর মধ্যে ২৮৬টি পৌরসভা নির্বাচন উপযোগি। এরমধ্যে কোনোটি অনুপযোগী হতে পারে, আবার অনুপযোগি থেকে উপযোগী হতে পারে। আর ৪৩টি পৌরসভায় মামলাসহ বিভিন্ন জটিলতা রয়েছে বলেও জানান সচিব।
সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সচিব বলেন, ‘কয় ধাপে হবে এটি বলা কঠিন। চেষ্টা করা হবে যতটা কম ধাপে করা যায়। চার-পাঁচটা ধাপ তো লাগবেই।আইন অনুযায়ী, মেয়াদ শেষের পূর্ববর্তী ৯০ দিনের মধ্যেই পৌরসভার ভোট করতে হয়।
স্থানীয় সরকার আইন সংশোধনের পর ২০১৫ সালে প্রথম দলীয় প্রতীকে ভোট হয় পৌরসভায়। তখন ২০টি দল ভোটে অংশ নেয়।সর্বশেষ ২০১৫ সালে ২৪ নভেম্বর পৌর নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়। ৩৬ দিন সময় দিয়ে ভোটের তারিখ দেয়া হয় ৩০ ডিসেম্বর। এক দিনে ভোট হয় ২৩৪টি পৌরসভায়। বাকিগুলোয় মেয়াদোত্তীর্ণের তারিখ বিবেচনায় ও বিভিন্ন জটিলতা সেরে ভোট হয়।