আগামী প্রজন্ম মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে জানতে পারে সেব্যাপারে দায়িত্ব নিতে হবে

সংবাদদাতাঃ ৬ ডিসেম্বর মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসের এক অবিস্মরণীয় দিন। মুক্তিযুদ্ধে মোট এগারোটি সেক্টরের মধ্যে যশোর আট নম্বর সেক্টরে বিভক্ত। কমান্ডার এমএম মঞ্জুর এর বীরত্বপূর্ণ ভূমিকায় ৬ ডিসেম্বর যশোর জেলা শত্রুমুক্ত হয়। মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে যশোর হচ্ছে বাংলাদেশের প্রথম শত্রুমুক্ত জেলা। ইতিহাসের পাতায় ৬ ডিসেম্বরকে গুরুত্ব দিয়ে আগামীদিনের প্রজন্ম যাতে মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে জানতে পারে এবিষয়ে বাংলাদেশ তরুণ লেখক পরিষদকে তার নিজস্ব অবস্থানে থেকে দায়িত্ব গ্রহণ করতে হবে। যশোর সদর উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা জনাব মোহাম্মদ আলী স্বপন একথা বলেন।

এই দিনকে স্মরণ করে এবং ৬ ডিসেম্বরের প্রতি সম্মান জানিয়ে বাংলাদেশ তরুণ লেখক পরিষদ যশোর জেলা শাখা গরীব-দুঃখি শীতার্ত মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণের আয়োজন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন তিনি।

বুধবার বিকেলে বারান্দীপাড়ার মোল্লপাড়াস্থ বাঁশতলায় এ কর্মসূচির আয়োজন করে। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ তরুণ লেখক পরিষদের মাগুরা জেলা সাহিত্য বিষয়ক সম্পাদক ও রেডিও বেতার খুলনার স্বরচিত আবৃত্তিকার জনাব শচীন্দ্রনাথ বিশ্বাস এবং যশোর ক্যান্টনমেন্ট কলেজের ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান জনাব এসএম তাজউদ্দিন। সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ তরুণ লেখক পরিষদের যশোর জেলা শাখার সভাপতি জনাব মোঃ হাসিবুর রহমান হাসিব। সঞ্চলনা করেন জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক রায়হান সিদ্দিক ময়না।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সহ সভাপতি রেজাউল বিশ্বাস সজল, সহ সভাপতি সোহেল রানা দিপু, সহ সাধারণ সম্পাদক হৃদয় তরফদার, সহ সাধারণ সম্পাদক ইফতেখার রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ জিহাদ হোসেন, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক জয়ন্ত সিংহ সাহা, কলেজ বিষয়ক সম্পাদক অনিক চক্রবর্তী, সহ কলেজ বিষয়ক সম্পাদক রকিবুল ইসলাম তন্ময়, প্রচার সম্পাদক আলাল হোসেন অপু, সহ প্রচার সম্পাদক সাজিদ হাসান, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক সিমরিন তুলি, গ্রন্থাগার বিষয়ক সম্পাদক ইসায়াক হোসেন, সহ গ্রন্থাগার বিষয়ক সম্পাদক ইসমাইল হোসেন আকাশ সদস্য- নিয়াজ, ইমন, শিমুল, আব্দুল্লাহ্ আল মামুন, সোহেল রানা, মামুন, সাজিন ও মাহিম প্রমুখ।