আখেরী মোনাজাতের মাধ্যমে বরিশালে ইজতেমা সমাপ্ত

কল্যান কুমার চন্দ,বরিশাল থেকে ॥ দ্বীনের পথে চলার আহবান আর বাংলাদেশসহ বিশ্ববাসীর শান্তি কামনা করে আখেরী মোনাজাতের মধ্যদিয়ে বরিশালে তিন দিনের জেলা ইজতেমার আঞ্চলিক পর্বের সমাপ্তি হয়েছে। শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় বিভাগীয় শহর বরিশাল নগরীর নবগ্রাম সড়কের সরদার পাড়া মাঠে রাজধানীর কাকরাইল মসজিদের মুরুব্বি শায়েখ মাওলানা জুবায়ের শাহাব ইজতেমার আখেরী মোনাজাত পরিচালনা করেন।
আখেরী মোনাজাতের সময় আগত প্রায় তিন লাখেরও অধিক মুসুল্লীদের আমীন আমীন ধ্বনিতে পুরো বরিশাল নগরী প্রকম্পিত হয়ে ওঠে। আখেরী মোনাজাতে শাহাব বলেন, নবী করিম (সাঃ) এর আদর্শ ধারণ করে দ্বীনের পথে আগামের এগিয়ে যেতে হবে। নামাজ আদায় করতে হবে মসজিদে গিয়ে। এসময় তিনি ইজতেমায় আগত মুসুল্লীদের প্রতি দ্বীনের পথে চলা এবং সৎভাবে জীবন যাপন করার আহবান করেন। বরিশালে প্রথমবারে অনুষ্ঠিত ইজতেমার মাঠের জিম্মাদার আবুল খায়ের খান হামিম বলেন, ইজতেমায় আড়াই লাখ মুসুল্লীর বসার ব্যবস্থা করা হলেও তা ছাপিয়ে গেছে। এবারে তিন লাখের বেশী মুসুল্লী জেলা ইজতেমায় অংশ নিয়েছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।
সূত্রমতে, ঢাকার টঙ্গীর তুরাগ তীরে বিশ্ব ইজতেমায় মুসুল্লীদের দুর্ভোগ কমাতে চলতি বছর বরিশালসহ ৩২টি জেলায় আগাম ইজতেমার সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়। তারই অংশ হিসেবে গত বৃহস্পতিবার নগরীর নবগ্রাম রোড এলাকার সরদার পাড়ার প্রায় ১০ একরের কৃষি জমিতে তিন দিনব্যাপী জেলা ইজতেমা আনুষ্ঠানিক ভাবে শুরু হয়ে আখেরী মোনাজাতের মাধ্যমে শনিবার শেষ হয়। আখেরী মোনাজাতে নগরীসহ জেলার বিভিন্ন উপজেলার কয়েক লাখ মুসুল্লীদের অংশগ্রহণে ইজতেমার মাঠ কানায় কানায় পরিপূর্ন হয়ে যায়। প্রথমবারের ইজতেমার মাঠে মুসুল্লীদের সকল সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করেছে বরিশাল সিটি কর্পোরেশন। এছাড়াও বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে স্থাপন করেছিলো পুলিশ ক্যাম্প। ইজমেতায় আগত মুসুল্লীদের স্বাস্থ্য সেবা দিতে নিরলসভাবে মেডিকেল টিম কাজ করেছে। কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই তিন দিনের ইজতেমা সম্পন্ন হয়েছে।