অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফর অনিশ্চিত,বিসিবি হতাশ

যুগবার্তা ডেস্কঃ ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া বাংলাদেশ সফর পিছিয়ে দেওয়ায় বিস্ময় প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। এই খবর জানার পর শনিবার সন্ধ্যায় বিসিবির গণমাধ্যম ও যোগাযোগ কমিটির প্রধান জালাল ইউনুস বলেন, দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি এখন শান্ত। গত ছয় মাসে বড় ধরনের কোনো রাজনৈতিক সহিংসতাও ঘটেনি। এই সময়ে তাদের এমন একটি সিদ্ধান্তে আমরা বিস্মিত।
সম্ভাব্য নিরাপত্তা ঝুঁকির তথ্য পাওয়ার কথা জানিয়ে শনিবার সফর পিছিয়ে দেওয়ার কথা জানায় ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। বাংলাদেশের বিপক্ষে দুটি টেস্ট খেলতে নতুন অধিনায়ক স্টিভ স্মিথের নেতৃত্বে সোমবার ঢাকায় পৌঁছানোর কথা ছিল অস্ট্রেলিয়া দলের। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার ওয়েবসাইটে বলা হয়, সরকার টেস্ট দলকে বাংলাদেশ পাঠানোর নিরাপত্তা ঝুঁকি নিয়ে বোর্ডকে সর্তক করে দেওয়ায় ক্রিকেটারদের দেশ ছাড়ার তারিখ পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। সরকার আশঙ্কা করছে, বাংলাদেশে জঙ্গী দলগুলো পর্যটকদের ওপর হামলা চালাতে পারে।
ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জেমস সাদারল্যান্ড বলেন, আমরা ডিপার্টমেন্ট অব ফরেন অ্যাফেয়ার্স অ্যান্ড ট্রেড (ডিএফএটি) থেকে নির্দেশনা পেয়েছি। তাদের তথ্যের উপর ভিত্তি করে নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ ও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে সফরের জন্য একটি পরিবর্তিত নিরাপত্তা পরিকল্পনা নিয়ে আমরা কাজ করছি।
এ প্রসঙ্গে বিসিবি পরিচালক জালাল ইউনুস জানান, রোববার বাংলাদেশে আসবেন অস্ট্রেলিয়ার নিরাপত্তা কর্মকর্তা শন ক্যারল। তিনি এসে আলোচনা করার পর অস্ট্রেলিয়ার আসার নতুন তারিখ ঘোষণা করা হবে। অস্ট্রেলিয়ার আসার সময় পেছাচ্ছে কেবল, সফর বাতিল হয়নি।
আগামী ৯ অক্টোবর চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে প্রথম ও ১৭ অক্টোবর মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। সফরসূচিতে ৩ অক্টোবরে ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে বিসিবি একাদশের বিপক্ষে তিন দিনের একটি প্রস্তুতি ম্যাচও আছে। তবে ম্যাচগুলো নির্ধারিত তারিখে হবে কিনা তা এখনও জানানো হয়নি।
বাংলাদেশ সফরের সদিচ্ছার কথা উল্লেখ করে সাদারল্যান্ড জানান, তাদের কাছে খেলোয়াড় ও কর্মকর্তাদের নিরাপত্তার বিষয়টি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। এ নিয়ে কোনো ছাড় দেওয়া হবে না। অস্ট্রেলিয়া শেষবার বাংলাদেশ সফরে এসেছিল ২০১১ সালে। আর ২০০৬ সালের এপ্রিলের পর থেকে বাংলাদেশের বিপক্ষে কোনো টেস্ট খেলেনি তারা।