অভিনেত্রী ঈশিকাকে অজ্ঞান করে বাসার মালামাল লুট

যুগবার্তা ডেস্কঃ মডেল ও অভিনেত্রী ঈশিকা খানকে অজ্ঞান করে স্বর্ণালঙ্কার নিয়ে পালিয়ে গেছে তার বাসার গৃহকর্মী। চায়ের সঙ্গে নেশাজাত দ্রব্য মিশিয়ে খাওয়ানোয় বেশ অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। পরে তাকে স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। মঙ্গলবার দিবাগত রাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এসব কথা জানান ঈশিকা নিজেই। তিনি বলেন, সোমবার রাতে বাসার সবাইকে চা খাওয়ায় তাদের গৃহকর্মী। সংবেদনশীল সিডেটিভের অতিরিক্ত মাত্রায় সবাই ঘুমিয়ে পড়েন। সকালে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ফেসবুক স্ট্যাটাসে ঈশিকা আরো জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় হাসপাতাল থেকে ফেরার পর যখন গৃহকর্মীর খোঁজ করেও পাওয়া যাচ্ছিল না তখনই সন্দেহ হয়। এরপরে আলমারি ও অন্যান্য জায়গায় খুঁজে দেখেন সব স্বর্ণালঙ্কার ও দরকারি আরো অনেক কিছু খোয়া গেছে। স্বর্ণলঙ্কার ও খোয়া যাওয়া জিনিসপত্রের মূল্যমান কত হবে তা জানা যায়নি। তবে কিছুদিন আগে ঈশিকার বিয়ে হয়। সেখানে তার বিয়ের গহনাও ছিল এবং পরিমাণটাও বেশি ছিল বলে ধারণা করা যাচ্ছে। এ বিষয়ে ঈশিকার মা সঙ্গে সঙ্গে থানায় জিডি করেন। ঈশিকার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, স্বর্ণালঙ্কারের পরিমাণ প্রায় ৩৮ ভরি আর নগদ টাকা প্রায় এক লাখ ছিল।