অবৈধ, লুটেরা সরকারের ক্ষমতায় থাকার কোন অধিকার নাই – এবি পার্টি

স্টাফ রিপোটার: জাতিসংঘ মানবাধিকার পরিষদের তত্ত্বাবধানে গুম, খুন সহ আয়নাঘর’র মত গোপন বন্দীশালার সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ তদন্তের দাবী রাজধানীতে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে এবি পার্টি।

শুক্রবার বিকালে এবি পার্টির পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয় চত্ত্বর, থেকে শুরু হয়ে সেগুনবাগিচা, কাকরাইল, বিজয়নগর, পল্টনসহ গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিন শেষে মিছিলটি জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশে মিলিত হয়।

এবি পার্টির আহবায়ক ও সাবেক সচিব এএফএম সোলায়মান চৌধুরীর সভাপতিত্বে এবং সিনিয়র সহকারী সদস্য সচিব ও ঢাকা মহানগরী দক্ষিনের সদস্য সচিব আনোয়ার সাদাত টুটুলের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন পার্টির যুগ্ম আহবায়ক প্রফেসর ডাঃ মেজর (অবঃ) আব্দুল ওহাব মিনার, আনিসুর রহমান কচি, সদস্য সচিব মজিবুর রহমান মঞ্জু, যুগ্ম সদস্য সচিব ব্যারিস্টার আসাদুজ্জামান ফুয়াদ, ব্যারিস্টার জুবায়ের আহমেদ ভুইঁয়া, বিএম নাজমুল হক, দফতর সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুল্লাহ আল মামুন রানা, যুব পার্টির আহবায়ক এবিএম খালিদ হাসান, অর্থ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম এফসিএ, ঢাকা মহানগর উত্তরের আহবায়ক আলতাফ হোসাইন প্রমূখ।

সভাপতির বক্তব্যে সোলায়মান চৌধুরী বলেন, রাতের অন্ধকারে জ্বালানি তেলের দাম বাড়িয়ে সরকার জনগণের সাথে প্রতারণার আশ্রয় নিয়েছে। বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশনের সাবেক এই চেয়ারম্যান আরো বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম কমছে। অবিলম্বে দেশের বাজারে তেলের দাম কমাতে হবে। তিনি বলেন, অবিলম্বে সকল জিনিস পত্রের দাম কমাতে হবে, নইলে জনগণ সরকার পতনের আন্দোলন করতে বাধ্য হবে।

প্রফেসর ডা. আব্দুল ওহাব মিনার বলেন, জনগণের সরকার জনগণের দুঃখকষ্ট বোঝে। যেহেতু এই সরকার রাতের ভোটের সরকার তাই জনগণের দূর্দশা নিয়ে তাদের কোন ভাবনা নেই। তিনি অবিলম্বে সকল জিনিসপত্রের দাম কমানোর দাবি করেন।

দলের সদস্য সচিব মজিবুর রহমান মঞ্জু বলেন, রাতের ভোটের অবৈধ সরকার জনগণের জীবন যাত্রাকে আজ অতিষ্ঠ করে তুলেছে। দূর্নীতি, লুটপাট, ডলার পাচার করে অর্থনীতিকে করে তুলেছে অস্থিতিশীল, যার ফল ভোগ করছে জনগণ। তিনি আরও বলেন, সরকার গুম করে বিনা বিচারে দেশের বিভিন্ন নাগরিককে বছরের পর বছর আটক রেখেছে। বিরোধী মতের লোকদের দমন পীড়নের মাধ্যমে আজ গোটা দেশ আয়না ঘরে পরিনত হয়েছে।

ব্যারিস্টার ফুয়াদ বলেন, যে সরকার জনগনের খাদ্য নিশ্চিত করতে পারেনা, রাস্তার নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পারেনা, উন্নয়নের গার্ডারের নিচে মানুষ হত্যা করে তাদের ক্ষমতায় থাকার কোন অধিকার নাই। তিনি আরো বলেন, অবিলম্বে জনগণের অধিকার নিশ্চিত করুন নইলে পদত্যাগ করুন।

সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন, সহকারী সদস্য সচিব ও বিশিষ্ট শ্রমিক নেতা শাহ আব্দুর রহমান, গাজীপুর জেলা আহবায়ক আমজাদ খান, শ্রমিক নেত্রী বেবী পাঠান, কুমিল্লা জেলা সমন্বয়ক মিয়া মোহাম্মদ তৌফিক, এবি যুব পার্টির সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক এম ইলিয়াস আলী, সদস্য সচিব শাহাদাতুল্লাহ টুটুল, তরুন শিল্পপতি আশরাফ মাহমুদ রুমেল, এবি যুব পার্টির যুগ্ম সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট আলী নাসের খান, সহকারী সদস্য সচিব, মির্জা সাইফুল ইসলাম, বরিশাল বিভাগীয় সহকারী সমন্বয়ক প্রকৌশলী কামাল হুসেইন, নারায়নগঞ্জ জেলা সমন্বয়ক শাহজাহান ব্যাপারী, লক্ষ্মীপুর জেলা আহবায়ক আনোয়ার হোসেন, মহানগর দক্ষিণের যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল হালিম খোকন, গাজী নাসির, যুগ্ম সদস্য সচিব শফিকুল বাশার, মহানগর উত্তরের সদস্য সচিব ফিরোজ কবির, প্রকৌশলী গাজী সাবের, রুনা হুসেন, জামিল আব্দুর রব, জামালপুর জেলার যুগ্ম আহবায়ক প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম রফিক, ছাত্র বিভাগের সমন্বয়ক মোহাম্মদ প্রিন্স, মহানগর দক্ষিণের নেত্রী আমেনা বেগম, ফেরদৌসী আক্তার অপি, যুবনেত্রী সুলতানা রাজিয়া সহ কেন্দ্রীয় ও মহানগরীর বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।