‘অবৈধভাবে’ পাথর উত্তোলনকালে কোয়ারি ধসে নিহত ৪

যুগবার্তা ডেস্কঃ সিলেটের কোম্পানিগঞ্জের ভোলাগঞ্জে পাথর উত্তোলনের সময় মাটি চাপায় চার শ্রমিক নিহত হয়েছেন। রবিবার রাত ১০টার দিকে হাজিরডেগনার সীমান্ত এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- সুনামগঞ্জ জেলার দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার মুরাদপুর গ্রামের হযরত আলীর ছেলে মতিউর রহমান (৩০) এবং একই এলাকার আসকর আলীর ছেলে রুহুল (২২)। সকালে উদ্ধার হওয়া লাশ দুটির পরিচয় এখনো পাওয়া যায়নি। নিহতদের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে ধারণা করছেন সংশ্লিষ্টরা।
জানা গেছে, কালাইরাগ কোয়ারিতে অবৈধভাবে গর্ত করে একটি চক্র দীর্ঘদিন ধরে পাথর উত্তোলন করে আসছে। রাতের আঁঁধারে জেনারেটর চালিয়ে প্রভাবশালীরা পাথর উত্তোলন করে। কোয়ারি এলাকায় ৪০/৫০ ফুট গভীর গর্ত করে শ্রমিকরা ঝুঁকি নিয়ে পাথর উত্তোলনকালে গর্তের পাড় ধসে পড়ে। এতে বেশ কয়েকজন শ্রমিক মাটিচাপা পড়েন।
পশ্চিম ইসলামপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শামীম আহমদ বলেন, হাজীর দাইন্যা এলাকায় অবৈধভাবে পাথর উত্তোলনকালে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও তার ব্যবসায়িক পার্টনারদের মালিকানাধীন কোয়ারির গর্তের পাড় ধসে শ্রমিকরা নিহত হয়েছেন।
তিনি জানান, আরও কয়েকটি লাশ মাটির নিচে চাপা পড়ে থাকতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।
যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে পাথর কোয়ারির অন্যতম মালিক উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলী আমজাদের মোবাইল নম্বর বন্ধ পাওয়া যায়।
চারজনের নিহত হওয়ার খবর নিশ্চিত করে কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) দিলিপ নাথ জানান, কোয়ারি খুড়ে পাথর উত্তোলন করার সময় কোয়ারি ধসে চারজন নিহত হয়েছেন। রাতে দুইজন ও আজ সকালে আরো দুইজনের লাশ উদ্ধার করা হয়।-ইত্তেফাক